জাতিসংঘ বাংলাদেশে জলবায়ু কর্মকান্ডে অর্থায়নের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে : পরিবেশ ও জলবায়ু মন্ত্রী

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় জাতিসংঘ তার বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে বাংলাদেশকে যথেষ্ট অর্থায়ন  করবে।
চলতি অর্থবছরে ২৪টি মন্ত্রণালয় থেকে বরাদ্দকৃত ৩৫ হাজার কোটি টাকা অপর্যাপ্ত বলে উল্লেখ করে তিনি আর্থিক সহায়তা বাড়ানোর ওপর জোর দেন।

তিনি বলেন, জাতিসংঘের বিভিন্ন চ্যানেলের মাধ্যমে জলবায়ু প্রশমন এবং অভিযোজন প্রচেষ্টার  জন্য অতিরিক্ত তহবিল সংগ্রহের বিষয়ে জাতিসংঘ প্রতিনিধি দলের সাথে আলোচনা হয়েছে।
মন্ত্রী আজ রাজধানীর পরীবাগে তার বাসভবনে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক গুয়েন লুইসের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ঊর্ধ্বতন উন্নয়ন সমন্বয় কর্মকর্তা ও কৌশলগত পরিকল্পনাবিদ লুইস বারবার।
জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক আর্থিক সহায়তা নিশ্চিত করার ওপর গুরুত্ব তুলে ধরে, লুইস জাতীয় অভিযোজন পরিকল্পনা, অ্যাডভোকেসি, বন্যা নিয়ন্ত্রণ এবং সম্প্রদায়-ভিত্তিক অভিযোজন ব্যবস্থা বাস্তবায়নসহ জলবায়ু স্থিতিস্থাপকতা কৌশলগুলোতে বাংলাদেশের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে সহযোগিতা করার জন্য জাতিসংঘের প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করেন।

তিনি পরিবেশ সংরক্ষণে বাংলাদেশের নেতৃত্বের প্রশংসা করেন এবং দেশের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার জন্য জাতিসংঘের অব্যাহত সমর্থনের প্রতিশ্রুতি দেন।
বৈঠকে বন উজাড়, জীববৈচিত্র্যের ক্ষতি এবং প্লাস্টিক দূষণের মতো গুরুত্বপূর্ণ পরিবেশগত চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সহযোগিতামূলক প্রচেষ্টা নিয়েও আলোচনা হয়েছে।
লুইস এবং চৌধুরী পরিবেশ সুরক্ষা এবং টেকসই উন্নয়ন উদ্যোগে জাতিসংঘ এবং বাংলাদেশের মধ্যে অংশীদারিত্ব জোরদার করার উপায়গুলো অনুসন্ধান করেছেন। (বাসস)