বস্তুনিষ্ঠ ও সময়োচিত তথ্য-উপাত্ত সরকারের সার্বিক কার্যক্রমকে আরো গতিশীল করবে : রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন বলেছেন, দেশের সামগ্রিক উন্নয়নে কার্যকর পরিকল্পনা প্রণয়ন, বাস্তবায়ন ও লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বিবিএস-এর বস্তুনিষ্ঠ ও সময়োচিত তথ্য-উপাত্ত সরকারের সার্বিক কার্যক্রমকে আরো গতিশীল করবে।
আগামীকাল ‘জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস ২০২৪’ উপলক্ষ্যে আজ এক বাণীতে রাষ্ট্রপতি এ কথা বলেন। এবারে দিবসটির প্রতিপাদ্য ‘স্মার্ট পরিসংখ্যান, উন্নয়নের সোপান।’
সাহাবুদ্দিন বলেন, ‘বাংলাদেশ টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট ২০৩০-এর জন্য বিভিন্ন সূচক পরিমাপ, সরকারের ‘রূপকল্প ২০৪১’, পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা, ২০৩১ সালের মধ্যে উচ্চ-মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তর, সামাজিক ও অর্থনৈতিক জরিপ ও শুমারি পরিচালনাসহ দারিদ্র্য নিরসনের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত সরবরাহের গুরুত্ব অপরিসীম।’
তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে যথাযথ পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়নের জন্য সঠিক ও নির্ভরযোগ্য ‘পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা’ নিশ্চিতের লক্ষ্যে একটি স্বতন্ত্র ও পৃথক সংস্থা হিসেবে ১৯৭৪ সালে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো প্রতিষ্ঠা করেন।’
রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো জাতীয় ও আঞ্চলিক পর্যায়ে নীতি নির্ধারণ, উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ, বাস্তবায়ন ও মূল্যায়নে সময়োপযোগী ও নির্ভরযোগ্য তথ্য-উপাত্ত সরবররাহ করে আসছে। আমি মনে করি, ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে তথ্য সংগ্রহ, সংকলন ও প্রকাশের মাধ্যমে বিবিএস ‘স্মার্ট বাংলাদেশ ও সমৃদ্ধ সোনার বাংলা’ গঠনে সরকারের প্রচেষ্টাকে ত্বরান্বিত করতে পারে।’
তিনি ‘পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অধীন ‘পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ’ ও ‘বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)’র যৌথ উদ্যোগে ‘জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস ২০২৪’ উদ্যাপনের উদ্যোগকে স্বাগত জানান। এছাড়াও তিনি ‘জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস-২০২৪’ উপলক্ষ্যে গৃহীত সকল কর্মসূচির সফলতা কামনা করেন। (বাসস)