সলঙ্গা গণহত্যার স্থানে স্মৃতিস্তম্ভ নির্মানে হাইকোর্ট নির্দেশ

বৃটিশ শাসনামলে ১৯২২ সালের ২৭ জানুয়ারি ওই সময়ের পুলিশের গুলিতে সিরাজগঞ্জের সলঙ্গায় গণহত্যার স্থানে স্মৃতিস্তম্ভ নির্মানে নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।
বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি এসএম মাসুদ হোসেন দোলনের সমন্বয়ে গঠিত একটি হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ আজ রুলসহ এ আদেশ দেয়।
আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. আসাদ উদ্দিন। আর রাষ্ট্র পক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।
এডভোকেট মো. আসাদ উদ্দিন আদালতের আদেশের বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান। তিনি বলেন,
বিদেশি পণ্য বর্জন ও স্বদেশি পণ্য ব্যবহার করার আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে ১৯২২ সালের ২৭ জানুয়ারি সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জের সলঙ্গা হাটে গণহত্যা সংঘটিত হয়। যেখানে মাওলানা আবদুর রশীদ তর্কবাগীশের নেতৃত্বে সলঙ্গা এলাকায় আন্দোলনরত জনতার ওপর নির্বিচারে গুলিবর্ষণ করে ব্রিটিশ পুলিশ। এতে সরকারি হিসেবে চার হাজার স্থানীয়দের মতে প্রায় ১০ হাজার মানুষ হতাহত হয়েছে।
এ আইনজীবী জানান, সলঙ্গা গণহত্যাকে জাতীয় দিবস ঘোষণা চেয়ে সিরাজগঞ্জে বাড়ি এমন ১১ জন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী হাইকোর্টে রিটটি দায়ের করেন। আজ শুনানি নিয়ে রুলসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুল জারি করে। রুলে ২৭ জানুয়ারি সলঙ্গা গণহত্যাকে জাতীয় দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না-তা জানতে চাওয়া হয়েছে। একই সাথে এই গণহত্যা সংঘটনের স্থানে একটি স্মৃতি স্তম্ভ নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছে উচ্চ আদালত। (বাসস)